• শুক্রবার ( দুপুর ১২:১৮ )
  • ২২শে সেপ্টেম্বর ২০১৭ ইং
  • ১লা মুহাররম ১৪৩৯ হিজরী
  • ৭ই আশ্বিন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ ( শরৎকাল )
MY SOFT IT

ফেসবুকে জনপ্রিয় হওয়ার সহজ উপায়!

ফেসবুকে জনপ্রিয় হওয়ার সহজ উপায়!
ফেসবুকে প্রোফাইল নেই আজকালকার যুগে এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কিন্তু এত বড় একটা ফেসবুকের দুনিয়ায় নিজেকে কী করে জনপ্রিয় করে তুলবেন?গোটা বিশ্বে অনেক মানুষই আছেন যাদের মানুষ চেনে তাদের দারুণ ফেসবুক পেজের জন্য। কীভাবে লোকে আপনাকে আলাদা করে চিনবে আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্টের জন্য! রইল তার উপায়–
১০) আগ বাড়িয়ে বন্ধুত্বের হাত বাড়াবেন না–
অনেকেই আছে যারা শুধু আকর্ষণীয় প্রোফাইল পিকচার বা সুন্দর মুখ দেখে ‘ফ্রেন্ড রিক্যুয়েস্ট’ পাঠায়। অনেক সময়ই সেসব ফ্রেন্ড রিক্যুয়েস্ট রিজেক্ট হয়ে যায়। আসলে বাস্তবে জীবনে যেমন ফেসবুকেও তেমন। আগ বাড়িয়ে আর যাই হোক বন্ধুত্ব হয় না। ফেসবুকের বন্ধুত্বটাও হয় বাস্তবের দুনিয়ার নিয়ম মেনেই। মানে হওয়ার ছিল তাই হল। নাকি হতে চাই তাই হল। আমাদের অনেকেরই ভুল ধারণা ফেসবুকে যত বেশি ফ্রেন্ডস থাকবে, ততই আপনি জনপ্রিয় হবেন। সেটা সম্পূর্ণ ভুল ধারণা। আপনার প্রোফাইল সুন্দর, কার্যকরী ও ভাল হলে আপনার কাছে অটোমেটিক ফ্রেন্ড রিক্যুয়েস্ট আসতে শুরু করবে।
৯) ‘লাইক’ কথাটার গুরত্ব বুঝে লাইক দিন–
এমনিতে ফেসবুকে জনপ্রিয় হওয়ার খুব সাধারণ একটা উপায় হল বিভিন্ন পোস্টে লাইক দিয়ে যাওয়া। কিন্তু সব ক্ষেত্রে এটা সত্যি নয়। লাইক কথাটা বুঝে তবেই লাইক বটন টিপুন। লাইক-এর চেয়ে কমেন্ট অনেকক্ষেত্রেই বেশি কার্যকরী হয়। ধরুন আপনার বন্ধু একটা ছবি পোস্ট করল। আপনি সেখানে শুধু লাইক দিলেন। বন্ধু খুশি হল ঠিকই, কিন্তু যদি সেখানে কমেন্ট করে মজার কিছু বললেন। দেখবেন সেটা আরও কাজে দেবে। সব পোস্টে লাইক দেওয়ার অভ্যাসটাও ছাড়ুন। নিজে কিছু লিখতে পারেন না? কোন সমস্যা নেই। বিভিন্ন ওয়েবসাইটের ভালো ভালো কন্টেন্ট শেয়ার করুন নিজের টাইম লাইনে। অনেকেই আগ্রহী হয়ে উঠবে এইসব লেখার প্রতি এবং আপনার জনপ্রিয়তাও বাড়বে।
৮) বিরক্তিকর নয় ব্যতিক্রমী পোস্ট করুন–
নিয়মিত পোস্ট করবেন ঠিকই, কিন্তু তা বলে বিরক্তিকর পোস্ট করবেন না। অনেকেই আছেন, যারা যা করেন সব কিছুই ফেসবুকে পোস্ট করতে শুরু করেন। মনে রাখবেন আপনার যেটা ভাল লাগছে সবার সেটা নাও ভাল লাগতে পারে। পোস্ট যদি করতেই হয় ব্যতিক্রমী পোস্ট করুন। সাধারণ ঘটনা থেকে মজার বা তাত্‍পর্যপূর্ণ কিছু জিনিস বের করে ব্যতিক্রমী পোস্ট করুন। মনে রাখবেন ব্যতিক্রম বেশিরভাগ সময় জনপ্রিয় হয়।
৭) নিউজ সাইটের পোস্ট শেয়ার করুন, নিজে খবর দিন, নিজের বক্তব্য জানান–
মানুষ খবরে থাকতে ভালবাসে। ধরুন আপনি খবর পেলেন একটু আগে ভূমিকম্প হয়েছে। কোনও নিউজ সাইটের পোস্ট নিজের টাইমলাইনে শেয়ার করলেন, দেখবেন বন্ধুরা আপনাকে আলাদা গুরুত্ব দেবে। সাম্প্রতিক কোনও ঘটনা নিয়ে নিজের বক্তব্য লিখুন। খেলা থেকে শুরু করে রাজনীতি, বিনোদন জগত ইত্যাদি পছন্দের যে কোন বিষয় নিজেই স্ট্যাটাস দিন। তাতে অন্যরা খুব সহজেই আপনার সঙ্গে এনগেজ হতে পারবে। ফলে জনপ্রিয়তাও বাড়বে আপনার।
৬) সিনেমা, বই রিভিউ করুন নিজস্ব কায়দায়, নিয়মিত-
মানুষ অজান্তেই তাদের ফলো করে যারা তাদের পছন্দের বিষয়ে নিয়ে চর্চা করে। সিনেমা বা বই হল এমন কিছু বিষয় যা নিয়ে আপনি চর্চা করলে বা রিভিউ দিলে মানুষ আকর্ষিত হয়। সপ্তাহের কোনও একটা নির্দিষ্ট দিনে ছোট করে সিনেমার রিভিউ দিন, অন্য একটা দিনে যে বইটা আপনি পড়লেন তা নিয়ে জানান। ধরুন রবিবার আপনি সম্প্রতি রিলিজ হওয়া সিনেমার রিভিউ লিখলেন, আর বুধবার সম্প্রতি পড়া কোনও বই নিয়ে লিখলেন।
৫) প্রোফাইল পিকচারে অভিনবত্ব আনুন, মাঝেমাঝে পরিবর্তন করুন- প্রোফাইল পিকচার হল অনেকটা প্রোডাক্টের প্যাকেট বা ইউ টিউব ভিডিওতে থাম্বনেলের মত। ইউ টিউবে অন্তত ৬০ শতাংশ ক্ষেত্রে আমরা ভিডিও দেখি thumbnail দেখে। তেমনই মানুষ একটা ফেসবুক প্রোফাইল ভাল-মন্দ বিচার করে প্রোফাইল পিকচার দেখে। প্রোফাইল পিকচার মানে শুধু সেলফি, বা নিজের ছবি দেওয়া নয় বেশিরভাগ জনপ্রিয় ফেসবুক পেজের প্রোফাইল পেজ হয় অভিনব। সেইরকমই কিছু ভাবুন। তবে খেয়াল রাখবেন প্রোফাইল পিকচার একরকম, আর আপনি পোস্ট করছেন অন্যকিছু সেরকম যেন না হয়। মাঝেমাঝেই ফেসবুকের প্রোফাইল পিকচার পরিবর্তন করুন। একটি সুন্দর মুখের যা আবেদন, সেটা আর অন্য কোন কিছুতেই নেই। ফেসবুকে দ্রুত জনপ্রিয় হবার সবচেয়ে সহজ কৌশল হল দারুণ সব প্রোফাইল পিকচার আপলোড করা। বা কোথাও ঘুরতে গেলেন, আনন্দের মুহূর্তগুলো শেয়ার করা বন্ধুদের সাথে। দেখেন দ্রুত বাড়ছে জনপ্রিয়তা।
৪) নিজের ফেসবুক পেজকে বন্ধুদের একটা প্ল্যাটফর্ম হিসেবে ব্যবহার করতে দিন-নিজের ফেসবুক পেজকে একটা প্ল্যাটফর্ম হিসেবে কাজে লাগাতে দিন। সেটা হতে পারে কোনও সেলেব্রিটির ফ্যান হয়ে, কোনও ক্লাবের সমর্থক হয়ে, বা কোনও পোশাক বা খাবারের আলোচনা নিয়ে। আপনার আগ্রহের বিষয়ের কমিউনিটি পেজগুলিতে লাইক দিন। আপডেটগুলো শেয়ার করুন, তারপর আলোচনার জায়গা তৈরি করুন।
৩) বন্ধুদের সব পরিস্থিতিতে পাশে থাকার বার্তা দিন–
বন্ধুদের বিপদে পাশা থাকার বার্তা দিন। ধরুন কারও খুব তাড়াতাড়ি রক্তের প্রয়োজন। আপনি আপনার ফেসবুক পেজের মাধ্যমে সেই ব্যবস্থা করে দিন। কেউ হয়তো খুব অসুস্থ, চিকিত্‍সার জন্য টাকা প্রয়োজন। আপনার ফেসবুক প্রোফাইলের মাধ্যমে ব্যবস্থা করে দিন। মানুষ যদি জানে আপনি বিপদের সময় পাশে থাকবেন তাহলে এমনিতেই আপনি ফেসবুকে জনপ্রিয় হয়ে উঠবেন।
২) জন্মদিন, বিশেষ দিনে আলাদা কিছু করে বন্ধুদের স্পেশাল ফিল করতে দিন–
বন্ধুদের জন্মদিনে শুভেচ্ছা তো ব্যক্তিগত ভাবে জানাবেনই সঙ্গে বন্ধুকে স্পেশাল ফিল দেওয়ার জন্য আলাদা কিছু করুন। ধরা যাক আপনার বন্ধুর জন্মদিন ২৩ অক্টোবর। সেদিন আবার কিংবদন্তি ফুটবলার পেলের জন্মদিন। আপনি পোস্ট করতেই পারেন ‘দেখো আমার বন্ধু পুরো পেলের মত বড় সেলেব একই দিনে জন্মেছে।’
১) এছাড়াও আরও কিছু-
ক) অশ্লীল বা সাম্প্রদায়িক পেজে লাইক দেওয়া থেকে বিরত থাকুন।
খ) আপনি হয়তো খুব ভালো ভালো স্ট্যাটাস লেখেন বা নোট/ছবি ইত্যাদি আপলোড করেন, বিভিন্ন ভালো ভালো কন্টেন্ট শেয়ার দেন। কিন্তু এগুলো যদি পাবলিক করা না থাকে তাহলে লোকে দেখবে কীভাবে? আর দেখলে তাঁরা আপনার প্রতি আগ্রহী হবেন কীভাবে? তাই এইসব ব্যাপার পাবলিক সেটিং এ রাখুন।
গ) নিজেকে হাসিখুশি মানুষ হিসাবে তুলে ধরুন-
একজন বিষণ্ণ আর খিটখিটে মানুষের বন্ধু কেউ হতে চায় না। তাই ফেসবুকে নিজেকে হাসিখুশি মানুষ হিসাবে উপস্থাপন করলেই পাবেন জনপ্রিয়তা। মজার স্ট্যাটাস দিন, সকলের মজার কথা বলুন। দেখবেন আপনাকে এমনিতেই পছন্দ করছে লোকে।
ঘ) মাঝে মাঝে সমালোচনার রাস্তায় হাঁটুন-
পৃথিবীতে সবচাইতে কার্যকর পাবলিসিটি কৌশল হচ্ছে নেগেটিভ পাবলিসিটি। শুনতে খারাপ শোনালেও এটাই সত্যি। আপনার অপছন্দের কিছু বিষয় নিয়ে তীব্র সমালোচনা করা স্ট্যাটাস দিন। দেখবেন ফ্রেন্ড ও ফলোয়ার দুটোই বাড়ছে।
ঙ) ) বিভিন্ন গ্রুপে যোগ দিন
ফেসবুকে আজকাল অনেক ভালো ভালো গ্রুপ আছে। এইসব গ্রপের সক্রিয় সদস্য হয়ে যায়, সকলের সাথে পরিচিয় বাড়ান। সেখান থেকে বেছে বেছে পছন্দের মানুষের অ্যাড করুন। দেখবেন ভারি হচ্ছে আপনার ফ্রেন্ড লিস্ট।
চ) নিজের প্রতিভার প্রচার করুন
আপনি কি কোন কাজ খুব ভালো পারেন? যেমন রান্না করা, গান, নাচ, ছবি আঁকা, লেখালিখি ইত্যাদি কোন কিছু? তাহলে নিজের সেই প্রতিভা ফেসবুকে প্রকাশ করুন বিভিন্ন ভিডিও বা ছবির মাধ্যমে। নিজের অর্জন থাকলে সেগুলোও তুলে ধরুন। দেখবেন অন্যরা আগ্রহী হয়ে উঠছে আপনার প্রতি।
ছ) ফেসবুক সেলিব্রেটিদের সঙ্গে অন্তরঙ্গতা বাড়ান
খুব অল্প সময়ে ফেসবুকে জনপ্রিয়তা চাই? তাহলে তুমুল জনপ্রিয় কয়েকজনের সাথে খুব ভালো বন্ধুত্ব করে ফেলুন। এই মানুষগুলোর কারণে আপনিও হয়ে উঠবেন জনপ্রিয় একজন!
জ) টাইমিং
সঠিক পোস্ট সঠিক সময়ে দেয়াও ফেসবুকে জনপ্রিয় হবার একটা মূল কৌশল। যেমন ছুটির দিনে বা বৃহস্পতিবারের রাতগুলোতে ফেসবুকে বেশী সক্রিয় থাকুন। মজার মজার পোস্ট ও স্ট্যাটাস দিন। দেখবেন জনপ্রিয়তা বাড়ছে।

Web design company Bangladesh

পুরাতন খবর

September 2017
SMTWTFS
« Jun  
 12
3456789
10111213141516
17181920212223
24252627282930

Related News

মোবাইল ব্যাংকিংয়ে নিরাপদ থাকুন ৬ উপায়ে

বছরজুড়ে মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে লেনদেন করেন নিয়মিত। সহজে টাকা পাঠানো ও ওঠানো যায় বলে জনপ্রিয়তাও পেয়েছে ...

বিস্তারিত

ছবির সাইজ কমাবে ‘রিওটি’ সফটওয়‍্যার

অনেক সময় ওয়েবসাইট ছবি আপলোডের সময় বড় সাইজের ছবি হলে অসুবিধা হয়। আবার যদি বড় সাইজের ছবির সাইজ কমিয়ে দেওয়া ...

বিস্তারিত

গুগল ড্রাইভে সহজেই ফাইল খুঁজবেন যেভাবে

অনলাইনে ফাইল সংরক্ষণের জন্য বেশ জনপ্রিয় সেবা গুগল ড্রাইভ। একজন ব্যবহারকারী বিনামূল্যে ১৫ গিগাবাইট জায়গা পেয়ে ...

বিস্তারিত

কৃত্রিম ভাবে বাড়িয়ে দেওয়া যাবে ‘মেধা’, অবাক আবিষ্কার বিজ্ঞানীদের

সুকুমার রায় তাঁর কবিতায় ‘ফুটোস্কোপ’ দিয়ে ‘মুন্ডু’ দেখার কথা বলেছিলেন। মগজের ভেতর কতখানি ‘ভেজাল’ আছে সেটার ...

বিস্তারিত