• বুধবার ( বিকাল ৩:০৩ )
  • ২২শে নভেম্বর ২০১৭ ইং
  • ৩রা রবিউল-আউয়াল ১৪৩৯ হিজরী
  • ৮ই অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ ( হেমন্তকাল )
MY SOFT IT

বাংলাদেশে হোম অ্যাপ্লায়েন্সের দুটি ফ্যাক্টরি চালু করল স্যামসাং

হোম অ্যাপ্লায়েন্সের পণ্য তৈরিতে বাংলাদেশে দুটি ফ্যাক্টরি চালু করেছে দক্ষিণ কোরিয়ার বিখ্যাত প্রযুক্তি পণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান স্যামসাং। ১৫ জুন বৃহস্পতিবার থেকে স্থানীয় ইলেক্ট্রনিক্স পণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ট্রান্সকম গ্রুপ ও ফেয়ার ইলেক্ট্রনিক্সের সাথে যৌথভাবে বাংলাদেশেই উৎপাদিত হবে স্যামসাং এর এলইডি টেলিভিশন, রেফ্রিজারেটর, এয়ার কন্ডিশনার ও মাইক্রোওয়েভ ওভেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক ও কোরিয়ান অ্যাম্বাসেডর অনস্যাং ডু।

ট্রান্সকম গ্রুপের হেড অফ বিজনেস ইয়েমেন শরিফ চৌধুরী বলেন, চুক্তি অনুযায়ী আমাদের ফ্যাক্টরিতে প্রস্তুত হবে স্যামসাং ব্র্যান্ডের এলইডি টেলিভিশন। মহাখালীতে অবস্থিত ১৮ হাজার স্কয়ার ফিটের এই ফ্যাক্টরীতে প্রস্তুতি হিসেবে গত মাস থেকেই উৎপাদন কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, এখানে স্যামসাং এর ১৩টি মডেলের টেলিভিশন উৎপাদন করা হবে যা সর্বোচ্চ ৫৫ ইঞ্চি পর্যন্ত। এই ফ্যাক্টরিতে স্যামসাং প্রযুক্তিগত সহায়তা নিয়ে ৮৫জন ইঞ্জিনিয়ার কাজ করবেন। দেশেই উৎপাদিত এই টেলিভিশন আমদানীকৃত টিভির চেয়েও কমদামে বাজারজাত করা যাবে।

বর্তমানে দেশে স্যামসাং এর টিভি বাজারজাত করে এমন ৫টি পরিবেশক আছেন, তাদেরকেও এই ফ্যাক্টরি থেকে প্রস্তুত টিভি সাপ্লাই দেয়া হবে বলেও জানান তিনি।

এদিকে নরসিংদীর শিবপুরের অবস্থিত ফেয়ার ইলেকট্রনিক্সের ফ্যাক্টরিতে উৎপাদিত হবে রেফ্রিজারেটর, এয়ার কন্ডিশনার ও মাইক্রোওয়েভ ওভেন।

স্যামসাং মনে করছে বাংলাদেশে উৎপাদিত এইসব পণ্যের গুরুত্ব অনেক বেশি, তাই এইসমস্ত পণ্য শুধু দামেই সহজলভ্য হচ্ছে না একই সাথে আমদানীতে প্রতিবছর যেই খরচ হতো, সেখান থেকেও বৈদেশিক মুদ্রার বড় অংকের পরিমাণ বেচে যাবে।

ফেয়ার গ্রুপের চেয়ারম্যান রুহুল আলম আল মাহবুব বলেন, ফেয়ার ইলেকট্রনিক্স ইতিমধ্যেই তাদের ফ্যাক্টরিতে রেফ্রিজারেটর উৎপাদন শুরু করে দিয়েছে এবং খুব অল্প সময়ের মধ্যেই তারা বাকী তিনটি পণ্য উতপাদনও শুরু করবে।

তিনি আরও বলেন, আমাদের বিনিয়োগ ১০০ মিলিয়ন ডলার, আর স্যামসাং এর বিনিয়োগ প্রযুক্তিগত সহায়তা। এই দুয়ে মিলে আগামী তিন চারবছরের মধ্যে পণ্যের মান অনুযায়ী বাজারের ৩০ থেকে ৪০ শতাংশ শেয়ার আমাদের দখলে আনতে পারবো বলে আমরা আশাবাদী।

বাংলাদেশে তৈরি স্যামসাং এর এসব পণ্য বিদেশে রপ্তানী করার অনেক বড় একটা সম্ভাবনা আছে। কিন্তু এই ক্ষেত্রে সরকারের সহযোগিতার পাশাপাশি সংশ্লিষ্ট বিষয়ে পলিসি তৈরি করা দরকার বলেও মনে করেন তিনি।

উদ্বোধনী আরও অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, স্যামসাং ইলেকট্রনিক্সের স্ট্র্যাটেজিক বিজনেস লিডার কু ইয়্যুন চোই, স্যামসাং কনজিউমার ইলেকট্রনিক্স এর দক্ষিণ এশিয়ার প্রধান তাহেও পার্ক।

Web design company Bangladesh

পুরাতন খবর

November 2017
SMTWTFS
« Oct  
 1234
567891011
12131415161718
19202122232425
2627282930 

Related News

কোন স্মার্টফোন ব্যবহার করেন বিল গেটস?

সম্প্রতি মাইক্রোসফটের প্রতিষ্ঠাতা ও বিশ্বের শীর্ষ ধনী বিল গেটস তাঁর প্রিয় স্মার্টফোনের তথ্য প্রকাশ করেছেন। ...

বিস্তারিত

দামি হলেও আগ্রহ বেশি

শিগগিরই আইফোন টেনের আগাম ফরমাশ নেওয়া শুরু করবে মার্কিন প্রযুক্তিপণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান অ্যাপল। এর আগেই ...

বিস্তারিত

চার্জ খেকো কয়েকটি অ্যাপ

স্মার্টফোনের প্রত্যেক ব্যবহারকারীর সাধারণ একটি সমস্যা ব্যাটারির চার্জ দ্রুত শেষ হয়ে যাওয়া। নতুন ফোন কেনার পর ...

বিস্তারিত

নতুন আইফোনে নতুন কী কী থাকছে?

‘‌ওয়ান মোর থিং’। হ্যাট থেকে নতুন কিছু বের করে আনার আগে যেন মন্ত্র পড়ছেন জাদুকর। স্টিভ জবস এই বাক্যটিকে ...

বিস্তারিত