• শনিবার ( সন্ধ্যা ৬:১৯ )
  • ২৪শে ফেব্রুয়ারি ২০১৮ ইং
  • ৭ই জমাদিউস-সানি ১৪৩৯ হিজরী
  • ১২ই ফাল্গুন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ ( বসন্তকাল )
MY SOFT IT

ব্যাংকিং খাতে সাগরচুরি হয়েছে: অর্থমন্ত্রী

ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান খাতের কিছু কিছু ক্ষেত্রে লুটপাট হয়েছে বলে স্বীকার করেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। তিনি বলেছেন, শুধু পুকুরচুরি নয়, সাগরচুরি হয়েছে।
গতকাল মঙ্গলবার সংসদে ২০১৫-১৬ অর্থবছরের সম্পূরক বিলের ওপর আলোচনায় অংশ নিয়ে অর্থমন্ত্রী এসব কথা বলেন। ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের জন্য ২৩৮ কোটি ২ লাখ ৪৪ হাজার টাকা মঞ্জুরি বরাদ্দের দাবি তোলেন তিনি।
এর আগে আর্থিক ও ব্যাংক বিভাগের দাবির বিরোধিতা করে স্বতন্ত্র সাংসদ রুস্তম আলী ফরাজী বলেন, ব্যাংক খাত থেকে টাকা চুরি হয়েছে। সব ব্যাংকের একই অবস্থা। বাংলাদেশ ব্যাংকে পচন ধরেছে। ৮০০ কোটি টাকা কর্মকর্তাদের যোগসাজশে চুরি হলো। সব চুরির সঙ্গে ওই ব্যাংকের কর্মকর্তারা জড়িত। ৩০ হাজার কোটি টাকা চুরি হয়েছে। এগুলো পুকুরচুরি।
জবাবে আবদুল মুহিত বলেন, ‘এ দাবি অতি সামান্য। তবে রুস্তম আলী ফরাজীর সঙ্গে একমত হয়ে বলছি, ব্যাংকিং খাতে কিছু লুটপাট হয়েছে। এগুলো পুকুরচুরি নয়, সাগরচুরি।’
এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা এ বি মির্জ্জা মো. আজিজুল ইসলাম গতকাল প্রথম আলোকে বলেন, কেলেঙ্কারিগুলোর তদন্তের স্বচ্ছতা নিয়েই প্রশ্ন আছে। রিজার্ভ চুরি নিয়ে যে রকম তদন্ত হয়েছে, বড় কেলেঙ্কারিগুলো নিয়ে সে রকম তদন্ত হলেও যতটুকু সম্ভব তা পক্ষপাতহীন হতো। কেলেঙ্কারির নায়কদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়াও তখন সহজ হতো। কাজটি এখনো করা সম্ভব বলে তিনি মনে করেন।
হল-মার্ক, বিসমিল্লাহ গ্রুপ, বেসিক ব্যাংক কেলেঙ্কারি, শেয়ারবাজারসহ আর্থিক খাত থেকে রাজনৈতিক ও সামাজিকভাবে প্রভাবশালী ব্যক্তিরা ৩০ হাজার কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছেন। এসব ঘটনায় ব্যাংক কর্মকর্তাদের অপসারণসহ কিছু বিভাগীয় শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে মাত্র। কিন্তু অর্থ লুটপাটের দায়ে প্রভাবশালী ব্যক্তিদের শাস্তির আওতায় আনেনি সরকার, এমনকি মামলাও করেনি। আর্থিক কেলেঙ্কারির সর্বশেষ সংযোজন হলো বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরি।
সংসদে গতকালের আলোচনার শুরুতে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘প্রজেকশন ইজ প্রজেকশন। এটা পরিবর্তন হতেই পারে। আমরা যেটা দিয়েছি, আগামী তিন মাস পরে সেটাই সঠিক প্রমাণিত হবে। যারা আপত্তি তুলেছে, তারাও মেনে নেবে। প্রবৃদ্ধি কোনোভাবেই ৭ দশমিক ৫-এর কম হবে না। আমাদের নিজস্ব গবেষণা আছে। আমাদের পরিসংখ্যান ব্যুরো অনেক দক্ষ। আমাদের তথ্য নিয়েই তারা কাজ করে।’
আলোচনায় অংশ নিয়ে জাতীয় পার্টির ফখরুল ইমাম বলেন, অর্থমন্ত্রী মোট ১০টি বাজেট দিয়েছেন। টানা আটটি ও জাতীয় পার্টির সময়ে দুটি। জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘আমি কখনোই জাতীয় পার্টির বাজেট দিইনি। আমি দিয়েছি এরশাদ সাহেবের বাজেট। তখন জাতীয় পার্টির জন্মই হয়নি।’ সম্পূরক বাজেট সম্পর্কে বিরোধীদলীয় সদস্যদের সমালোচনার জবাবে অর্থমন্ত্রী আরও বলেন, ‘প্রকল্প ব্যয় প্রাক্কলিত ব্যয় থেকে বেশি হয়ে যাওয়ায় মঞ্জুরি দাবি এসেছে। আমি যে বাজেট দিয়েছি, তা যৌক্তিক। তবে এটা ঠিক, দুর্নীতি প্রকল্প ব্যয় বাড়িয়ে দেয়।’
এমপিওভুক্ত এক-তৃতীয়াংশ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খামাখা: বিভিন্ন সময়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তি করাসংক্রান্ত সাংসদদের দাবিকে ঢালাও এবং অযৌক্তিক বলে মন্তব্য করেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। গতকাল সম্পূরক বাজেটের ওপর দেওয়া ছাঁটাই প্রস্তাব সম্পর্কে আলোচনায় তিনি বলেন, যেসব প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করা হয়েছে, তার এক-তৃতীয়াংশ খামাখা গড়ে উঠেছে।
গতকাল সংসদে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদের পক্ষে অর্থমন্ত্রী শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের জন্য বাড়তি অর্থ বরাদ্দের প্রস্তাব করেন। এ সময় জাতীয় পার্টির কয়েকজন সাংসদ বাড়তি বরাদ্দ মঞ্জুর না করার দাবি জানান।
তখন অর্থমন্ত্রী এমপিওভুক্তি নিয়ে প্রশ্ন তোলেন। তিনি বলেন, ‘১৯৮৮ সালে এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ছিল ৯ হাজার। এখন সেটা প্রায় ২৮ হাজার, যার এক-তৃতীয়াংশই খামাখা হয়েছে। এমন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান রয়েছে, যেখানে শিক্ষক চারজন আর ছাত্র একজন। আমাদের সংসদ সদস্যরা এমপিওভুক্তির বিষয়ে যেভাবে সোচ্চার হন, সেভাবে ভুঁইফোড় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে সোচ্চার নন। একসময় মাধ্যমিক শিক্ষাব্যবস্থা ব্যক্তি উদ্যোগে পরিচালিত হতো। শিক্ষার প্রসারে অনেকে নিজে থেকেই এসব প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলতেন। বলতে কষ্ট হচ্ছে, এখন অনেকে এমপিওর লোভে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান তৈরি করছেন।’
অর্থমন্ত্রী আরও বলেন, ‘আমার মনে হয়, আমরা ভবিষ্যৎ প্রজন্ম নিয়ে সচেষ্ট নই। পাঠ্যবই দেখলে বোঝা যায় এটা যে কত হেভি। এর মধ্যে কী কী আছে, সে বিষয়ে আমরা সচেতন নই।’
সম্পূরক বাজেট পাস
চলতি ২০১৫-১৬ অর্থবছরে বাজেট বরাদ্দের অতিরিক্ত খরচ করেছে ৩৮টি মন্ত্রণালয় ও বিভাগ। এ কারণে জাতীয় সংসদে গতকাল ১৯ হাজার ৮০৩ কোটি ৬২ লাখ ৮৮ হাজার টাকার সম্পূরক বাজেট পাস হয়েছে। অর্থমন্ত্রী এ-সম্পর্কিত নির্দিষ্টকরণ (সম্পূরক) বিল, ২০১৬ উত্থাপন করলে কণ্ঠভোটে তা পাস হয়।
বিলের ওপর বিরোধী দল জাতীয় পার্টির ও স্বতন্ত্র সাংসদের দেওয়া ছাঁটাই প্রস্তাব কণ্ঠভোটে নাকচ হয়। সদস্যরা মোট ১৯০টি ছাঁটাই প্রস্তাব দেন। প্রস্তাবগুলোর মধ্যে অর্থ মন্ত্রণালয়ের ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ, প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, শিক্ষা মন্ত্রণালয়, স্থানীয় সরকার বিভাগ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয়ের মঞ্জুরি দাবি নিয়ে আলোচনা হয়।
চলতি অর্থবছরের কাজের জন্য মন্ত্রণালয় ও বিভাগগুলোকে সংযুক্ত তহবিল থেকে যে অতিরিক্ত অর্থ বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে, তা অনুমোদনের জন্যই পাস করা হয় সম্পূরক বিলটি।
বিলে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের জন্য ২৩৮ কোটি টাকার দাবি অনুমোদন দেওয়া হয়। এর বিরোধিতা করে স্বতন্ত্র সাংসদ রুস্তম আলী ফরাজী ব্যাংক খাতের জন্য একটি স্বতন্ত্র কমিশন গঠনের দাবি জানান।
জাতীয় পার্টির ফখরুল ইমাম বলেন, ১০০ কোটি টাকা চুরি হয়েছে, দাবি করা হয়েছে ২০০ কোটি টাকা। অর্থাৎ চুরির দ্বিগুণ। এখন আবার বেশি বরাদ্দ দেওয়ার দাবি উঠেছে। টাকা কম দিলে বরং চুরি কম হবে।
জবাবে আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন, ‘এ খাতে অনেক দোষ-ত্রুটি আছে। আমি আশ্বস্ত করতে চাই, এমন কিছু ঘটেনি যে এসব প্রতিষ্ঠানকে ধুয়ে-মুছে ফেলতে হবে।
প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের জন্য ২ হাজার ৩০৯ কোটি ২৮ লাখ টাকা মঞ্জুরির দাবি করেন সংসদ কাজে এ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী আনিসুল হক।
এর ওপর দেওয়া ছাঁটাই প্রস্তাবে রুস্তম আলী ফরাজী বলেন, ‘অনেকের ধারণা, এ খাতে স্বচ্ছভাবে টাকা খরচ হয় না। মন্ত্রীর উচিত বিষয়গুলো পরিষ্কার করা।’ ফখরুল ইমাম বলেন, সশস্ত্র বাহিনী আলংকারিক বাহিনী। সেতুমন্ত্রী তাদের হাজার হাজার কোটি টাকা দিয়েছেন। কিন্তু তাদের কাজে কোনো স্বচ্ছতা নেই।
জবাবে আনিসুল হক বলেন, ‘এ খাতের সব টাকা নিরীক্ষিত। স্বচ্ছতার অভাব নেই।’

Web design company Bangladesh

পুরাতন খবর

February 2018
SMTWTFS
« Jan  
 123
45678910
11121314151617
18192021222324
25262728 

Related News

রকেটে চড়ছে টেসলা গাড়ি

মঙ্গলের কক্ষপথে যাবে টেসলার একটি রোডস্টার গাড়ি। সম্প্রতি স্পেসএক্স প্রধান ইলন মাস্ক বলেন ‘ফ্যালকন হেভি’ ...

বিস্তারিত

এ বছরের স্যান্টা ট্র্যাকার আনলো গুগল

বড়দিনের ছুটির দিনগুলোতে স্যান্টা ক্লজের বর্তমান অবস্থান ও গন্তব্যস্থল জানতে শিশুদের সহায়তা করতে এ বছরের ...

বিস্তারিত

মহাকাশকেন্দ্রে রাশিয়ার বিলাসবহুল হোটেল

আন্তর্জাতিক মহাকাশ কেন্দ্রে বিলাসবহুল হোটেল বানানোর পরিকল্পনা করছে রাশিয়া।রাশিয়ার মহাকাশ সংস্থা ...

বিস্তারিত

২০১৭ সালের আলোচিত প্রযুক্তি

প্রযুক্তির উন্নয়ন ক্রমেই বাড়ছে। এই উন্নয়নের ধারা মূলত চলছে সময়োপযোগী করে। ২০১৭ সালে প্রযুক্তির উন্নয়নে ঘটেছে ...

বিস্তারিত